আমার পবিত্র ভালোবাসা
শেয়ার করুনFacebookTwitterWhatsApp

আমার পবিত্র ভালোবাসা

তার সাথে আমার অনেক কথা হয়। আসলে কথা হয় বললে ভুল হবে, কথাগুলো সেই বলে। আমি কেবল চুপচাপ মুগ্ধ হয়ে শুনে যাই তার কন্ঠস্বর। তার কন্ঠের মায়ায় ডুবে যেতে খুব একটা খারাপ লাগেনা আমার। খারাপের কথাটাও বা কেনো বললাম জানা নেই। তার কোনো ক্ষেত্রেই খারাপ শব্দটা ব্যবহার করাটা ঠিক মানায় না। সে বোধহয় জানে আমি তার কন্ঠের মোহে ডুবে যেতে ঠিক কতোটা পছন্দ করি কিংবা বোধহয় জানেনা! জানানোটা কি জরুরি সবসময়? হয়তোবা, আবার হয়তোবা না।

আমরা অনেকটা উদ্ভট তাইনা? কারো প্র‍তি থাকা অনুভূতিগুলোকে প্রকাশ করতে প্রচন্ড ভয় লাগে আমাদের। আবার আমরাই মনে মনে ভেবে বসে থাকি মানুষটা বুঝবে আমাদেরকে। আসলে আর বোঝে না, বোঝাটা হয়না তাদের। আমার ক্ষেত্রেও ঠিক তাই। খুব পাশে থেকেও, আমার দীর্ঘশ্বাসের শব্দ শুনেও সে বুঝতে পারেনা কতোটা ভালোবাসি তাকে! কতোটা চাই তাকে! নাকি সে বোঝে আমি সত্যিই জানিনা।

এভাবে চলতে চলতে একদিন হঠাৎ তাকে আমি বলে বসলাম, “আমি চাই তোমাকে।” তার কাছ থেকে কোনো উত্তর পাইনা। সে নিশ্চুপ থাকে। আর আমার ভেতরটা পুড়তে থাকে। পুড়তে থাকার কারণটা তার নিশ্চুপ থাকাটা নয়, সে নিশ্চুপ থাকলেও তো আমি তার দীর্ঘশ্বাসের শব্দ শুনতে পাই! আসলে পুড়তে থাকার কারণ প্রচন্ড ভয়। যেই ভয় আমাকে বারবার মনে করিয়ে দেয়, আমি তাকে পাবোনা। আমাকে বারবার মনে করিয়ে দেয়, সে আমার হবেনা। আমাকে বারবার বলতে থাকে, এই পুরোটা জীবন এই মানুষটাকে ছাড়া আমার বাঁচতে হবে।

আমি তাকে বলে বলি, “ভালোবাসি।” এবারেও সে নিশ্চুপ থাকে। আবারও আমার ভয় আমাকে মনে করিয়ে দেয় সেই পুরোনো কথাগুলোই। ‘পাবোনা’, ‘তাকে ছাড়াই বাঁচতে হবে’ এসবই। এই যন্ত্রণায় যন্ত্রণায় আমি এবার নিশ্চুপ হয়ে যাই। প্রচন্ড কষ্টে কিংবা আঘাতে।

আবারও আমি তাকে বলি, “তোমার জন্য থাকা আমার অনূভুতিগুলো সত্যি।” এবারে আর সে গত দু’বারের মতো নিশ্চুপ থাকেনা। সে আমায় বলে এই অনূভুতি আজ তার জন্য আছে, কাল অন্যের জন্য হয়ে যাবে। আবার এরপরে অন্যের জন্য। এটা তার কাছে ভালোবাসার অনূভুতি না। আমি এবারেও চুপ হয়ে যাই। কথা বলার কিছু খুঁজে পাইনা।

আমি জানি সে আমার এই চুপ থাকার কারণ জিজ্ঞেস করবেনা। কিন্তু সে কি কখনো জানবে, তার জন্য আমার বুকের ভেতরটা কেমন হাহাকার করে উঠে? সে কি কখনো জানবে, তাকে পাওয়ার জন্য কতোটা ব্যাকুল হয়ে থাকি আমি? সে কি কখনো জানবে, এই একটা জীবনের শেষ মুহুর্ত পর্যন্ত তার সাথে থাকার কতোটা আকুল ইচ্ছা আমার? সে কি কখনো জানবে, তাকে পাওয়ার জন্য সবকিছু করতে আমি রাজী আছি?

নাহ! কিছুই জানবেনা বোধহয়! আর এটাও জানবেনা, তাকে বলা এতোগুলো কথার মাঝখানে একটা প্রশ্ন এখনো জিজ্ঞেস করতে পারিনি আমি আর হয়তো কখনো জিজ্ঞেস করতেও পারবোনা, “ঠিক কতোটা ভালোবাসলে, ঠিক কতোটা চাইলে তুমি আমার হবে প্রিয়তমা?”

এই একটা প্রশ্ন হয়তো সারাজীবনই বয়ে বেড়াতে হবে আমার। অথচ সে জানবেনা, এই বুকের গভীরে তার জন্য কতোটা শুদ্ধতম, পবিত্র ভালোবাসা পুষে রাখি আমি।

শেয়ার করুনFacebookTwitterWhatsApp
লিখেছেন
সিয়াম মেহরাফ
আলোচনায় যোগ দিন

সিয়াম মেহরাফ

সিয়াম মেহরাফ

সিয়াম মেহরাফ একজন লেখক এবং গল্পকথক। তার বর্তমান মৌলিক বইয়ের সংখ্যা দুইটি। লেখালিখির পাশাপাশি অভিনয়ও তার আরেকটি প্যাশন।

নোটঃ

এই ওয়েবসাইটটির সকল ছবি, লেখা এবং ভিডিও সিয়াম মেহরাফ দ্বারা সংরক্ষিত। ওয়েবসাইটটির কোনো তথ্য ক্রেডিট কিংবা কার্টেসি ছাড়া কপি না করার অনুরোধ রইলো।

error: